World's largest digital platform for Bengali women

পরিচালক শ্রীকুমার মেননের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ অভিনেত্রীর

0 2,696

পরিচালকের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগ আনলেন দক্ষিণী অভিনেত্রী মঞ্জু ওয়ারিয়র। মালায়লম ছবি ‘ওডিয়ান’-এর পরিচালক শ্রীকুমার মেননের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ এনেছেন মঞ্জু। এবিষয়ে ইতিমধ্যেই পুলিসের কাছে অভিযোগও জানিয়েছেন মঞ্জু ওয়ারিয়র।

পরিচালক শ্রীকুমার মেননের বিরুদ্ধে

পরিচালন শ্রীকুমার মেননের বিরুদ্ধে মঞ্জুর অভিযোগ, পরিচালক তাঁকে সোশ্যাল মিডিয়ায় নানানভাবে অপমান করেছেন। এমনকি তাঁকে এবং তাঁর বন্ধুদের নানান হুমকি দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছেন অভিনেত্রী মঞ্জু ওয়ারিয়র। পুলিস সূত্রে খবর, মঞ্জু ওয়ারিয়র ইতিমধ্যেই কেরলের একটি থানায় গিয়ে নিজের হাতে অভিযোগ পত্র জমা দিয়েছেন এবং তিনি তাঁর অভিযোগের সাপেক্ষে থানায় বেশকিছু প্রমাণও জমা দিয়েছেন। মঞ্জু মেননের অভিযোগ, সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা তাঁর নানান ছবির নিচে বিভিন্ন অপমানকর কমেন্ট করে তাঁকে ছোট করতে চেয়েছেন পরিচালক। তাঁর আরও অভিযোগ, ‘মঞ্জু ওয়ারিয়র ফাউন্ডেশন’-এর একটি লেটার প্যাডকে ভুলভাবে ব্যবহার করেছেন মেনন। পাশাপাশি তাঁর সই করা ব্ল্যাঙ্ক চেকের অপব্যবহার করেছেন মেনন।

পরিচালক শ্রীকুমার মেননের বিরুদ্ধে

মালায়লম অভিনেত্র মঞ্জুর আরও অভিযোগ ‘ওডিয়ান’ ছবিটি মুক্তি পাওয়ার ঠিক পরপরই তাঁকে নানানভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় আক্রমণ করা হয়েছে। যেটা তিনি একধরনের সাইবার ক্রাইম বলেই দাবি করছেন। তাঁকে মেনন বিভিন্ন অপমানজনক মেসেজও করেছেন বলে দাবি মঞ্জু। অভিনেত্রীর আশঙ্কা পরিচালক শ্রীকুমার মেনন তাঁর আরও ভয়ঙ্কর কোনও ক্ষতি করতে পারেন।

অভিনেত্রী মঞ্জু ওয়ারিয়রের আনা অভিযোগ সম্পর্কে কেরল পুলিসের পিআর টিমের ডেপুটি ডিরেক্টর প্রমোদ কুমার জানিয়েছেন, ”মঞ্জু ওয়ারিয়র জানিয়েছেন, ডিজিপি লোকনাথ বেহরার সঙ্গে গত সোমবার দেখা করেছেন। তাঁর কাছে সমস্ত অভিযোগ জানিয়েছেন মঞ্জু।”

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালে একটি গয়নার বিজ্ঞাপনে একসঙ্গে কাজ করেছিলেন শ্রীকুমার মেনন ও মঞ্জু। তারপর থেকেই তাঁরা দুজনে দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো বন্ধু বলেই পরিচিত। পরবর্তীকালে ২০১৮ সালে শ্রীকুমার মেননের পরিচালনায় ‘ওডিয়ান’ ছবিতে দেখা যায় মঞ্জু ওয়ারিয়রকে। ছবিতে মোহনলালের বিপরীতে দেখা যায় মঞ্জুকে।

অন্যদিকে শ্রীকুমার মেননের দাবি, তিনিই মঞ্জু ওয়ারিয়রের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। তাঁর কথায়,মঞ্জু যখন তাঁর বাড়ি থেকে মাত্র ১৫০০ টাকা নিয়ে বেরিয়ে আসেন, তখন তিনিই তাঁকে বিজ্ঞপনে কাজ করার সুযোগ করে দেন, যে বিজ্ঞাপনের জন্য মঞ্জু ২৫ লক্ষ টাকা পেয়েছিলেন। পরিচালকের পাল্টা প্রশ্ন যে মানুষটা বিপদে পাশে দাঁড়িয়েছিল আজ মঞ্জু তাঁকেই কীভাবে ভুলে যেতে পারেন?

Comments
Loading...