১৫ টি প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য টিপস
১৫ টি প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য টিপস

স্বাস্থ্য সচেতনতা আমাদেরকে একটু বেশি সক্রিয় হওয়ার সময় উচিত। কেননা স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল কথাটি মিথ্যে নয় তাই আপনি নজর রাখুন সাস্থ্যের প্রতি। এখন থেকে মেনে চলুন স্বাস্থ্যরক্ষার উপকারী সব নিয়ম গুলো সব সময়।

১৫ টি প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য টিপস

(১) আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে নিয়মিত প্রতিদিন ১৫ গ্রাম করে মৌরি চিবিয়ে খান। এতে করে দেখা যাবে খুব কম সময়ে রক্ত শুদ্ধ করে আপনার ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করবে।

(২) হাত পায়ের সৌন্দর্য অক্ষত রাখতে চাইলে হাতে ও পায়ে নিয়মিত আপেলের খোসা ঘষে নিন। এতে করে আগের থেকে হাত ও পা অনেক বেশী ফর্সা দেখাবে এবং কালো দাগ গুলো দূর হবে দূর হবে চিরতরে।

(৩) আপনার স্ট্রোক প্রতিরোধ নিয়মিত চা খান। বিভিন্ন পরীক্ষায় দেখা গেছে যে নিয়মিত চা খেলে আমাদের ধর্মে নিয়োগ ফ্যাট জমতে পারে না। ফলে আমাদের স্ট্রোকের ঝুঁকিও অনেকখানি কমে যায়।

৪) আপনার শরীরকে অতিরক্ত শুষ্কতা থেকে মুক্তি পেতে মধু দুধ ও বেসনের পেষ্ট মুখে লাগান নিয়মিত। এতে করে আপনার ত্বকের বলিরেখা ও দূর হয়ে যাবে এবং ত্বক আরও উজ্জ্বল হবে।

৫) আপনার ঠোঁটে কালো ছোপ পড়লে কাঁচা দুধে তুলো ভিজিয়ে ঠোটেঁ মুছবেন। এটি যদি নিয়মিত করেন তাহলে ঠোটের কালো দাগ আর থাকবে না।

৬) টমেটোর রস ও দুধ একসঙ্গে মিশিয়ে কিছু সময় যদি মুখে লাগিয়ে রাখেন রোদে জ্বলা ভাব অনেকাংশে কমে যাবে।

৭) আমাদের সবারই পরিচিত মধু নানান গুণের অধিকারী। আমাদের শরীরে অসাড়তা, গলাব্যথা, রক্তস্বল্পতা, অস্টিও, পোরেসিস, মানসিক চাপ মাইগ্রেশন নানা শারীরিক সমস্যায় মধু বিশেষভাবে কার্যকর এবং উপকারী।

৮) আপনার কনিতে কালো ছাপ দূর করতে চাইলে এখন থেকে নিয়মিত লেবুর খোসায় চিনি দিয়ে ভালো করে ঘষে নিন। এটি নিয়মিত কিছুদিন করুন অন্তত সপ্তাহে দুই বা তিনবার এতে আপনার কোন এতে দাগ চলে গিয়ে কনুই নরম হবে।

৯) মুখ আমাদের পরিচিত বহন করে। এই সুন্দর মুখ যদি ব্রণে পরিপূর্ণ থাকে তাহলে আপনার সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যায় তাই না। একেতে আপনি নিয়মিত রসুনের খোসা ঘষে নিন আপনার ব্রণের উপর ব্রণ তাড়াতাড়ি হারিয়ে যাবে আপনার মুখ থেকে চিরতরে।

১০) আপনার সরিলে লিগমেন্টেশন বা কালো দাগ থেকে চিরতরে মুক্তি পেতে আলু লেবু ও শসার রস একসঙ্গে মিশিয়ে তাতে আধ চা-চামচ গ্লিসারিন মিশিয়ে শরীরের যে অংশে দাগ পড়েছে সেখানকার ত্বকে লাগান খুব ভাল ফলাফল পাবেন আপনি এটা ব্যবহার করলে।

১১) যদি মাথাব্যথা সমস্যা প্রবলেম আকার ধারণ করে তাহলে এই সমস্যা দূর করতে নিয়মিত প্রচুর মাছ খান। কেননা মাছের তেল মাথাব্যথা প্রতিরোধে বিশেষ কার্যকরী ভূমিকা পালন করে থাকে তাছাড়া আরও খেতে পারেন আদা। কেননা আদা প্রদাহ এবংব্যথা নিরাময়ে বিশেষভাবে কার্যকর।

১২) আপনার চুল পড়া বন্ধ করতে নিয়মিত মাথায় আমলা, শিকাকাই যুক্ত তেল লাগাতে পারেন আর পায়ের গোড়ালি খুব বেশি ফাটলে পেঁয়াজ বেটে প্রলেপ দিন ফাঁকা জায়গায়। এভাবে কিছুদিন ব্যবহার করা পরে দেখবেন যে আপনার পায়ে কোন ফাটা দাগ নেই।

১৩) সাধারণত তৈলাক্ত ত্বকে ঘাম জমে মুখ কালো দেখায়। এক্ষেত্রে আপনি একটা কাজ করতে পারেন ওটমিল ও লেবুর রস একসঙ্গে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখবেন আধা ঘন্টা বা তার একটু বেশি সময় । তারপর ঠান্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলবেন। যাদের হাতে খুব ঘামে তারা এই সমস্যা থেকে চিরতরে মুক্তি পেয়ে যাবেন।

১৪) আপনার পিঠের অনেক পুরানো কালো ছোপ তুলতে ময়দা ও দুধ একসঙ্গে মিশিয়ে পিঠে দশ মিনিট ধরে ঘষবেন নিয়মিত দুই সপ্তাহ এটা করতে পারেন। নিয়মিত এই মিশ্রণটি ব্যবহার করলে আপনার পিঠে কোন চাপ থাকবে না।

১৫) আপনার মুখে যদি বাদামী দাগ থাকে তাহলে বাদামী দাগ উঠাতে পাকা পেঁপে চটকে মুখে লাগান কিছু মৌজ রেখে দিন পরে মুখ ধুয়ে ফেলুন পরিষ্কার পানি দিয়ে।

বিউটি এবং হেলথ টিপস পেতে আমাদের ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করুন।

আপনার মতামত এবং প্রশ্ন আমাদেরকে কমেন্ট করে জানান আমরা খুব তাড়াতাড়ি আপনার প্রশ্ন এবং মতামত এর উত্তর দিয়ে থাকবো।