শীতের মৌসুম মানেই এক গোছা বিবাহ অনুষ্ঠান। আর শীতের বিবাহ অনুষ্ঠান মানে প্রচুর পরিমাণ সাজগোজ এবং একটি চমৎকার মেকআপ। আর এই মেকআপ যদি হয় আপনার ঘরে বসে তাহলে কেমন হয়।ভাবতেই অবাক লাগছে তাইনা।

হ্যাঁ আজকে আপনাদেরকে সেই কথাই জানাবো যে কিভাবে বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য বেসিক মেকআপ কোন পার্লারে না গিয়ে বাড়িতে বসে খুব সহজে করা যায়। চলুন তাহলে দেরি না করে জেনে নেই এই বেসিক মেকআপ এর মূল রহস্য।

মুখের মেকআপ

প্রথমেই আপনার মুখ থেকে ভালো পরিষ্কার পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিন এবং ফেসওয়াশ দিয়ে যত্নসহকারে ধুয়ে ফেলুন। এবার গুণগতমানসম্পন্ন কোন মশ্চারাইজার ক্রিম আপনার কপাল নাগাল এবং চোখের চারপাশে লাগিয়ে মেসেজ করে নিন ভালো করে।

15 থেকে 20 মিনিট অপেক্ষা করুন এতে লোশনটি আপনার মুখে ভালোভাবে বসে যাবে।

ফাউন্ডেশন ব্যবহারের ধারা পারফেক্ট মেকআপ পর্ব শুরু হয়। এটি নির্বাচনের ক্ষেত্রেও দ্বিতীয় শর্ত হলো আপনার স্কিন টনের থেকে 1 অথবা 2 শেড হালকা ফাউন্ডেশন ব্যবহার করা। প্রয়োজনে শেডিং এর জন্য ডিপ কালার লাগিয়ে নিন।

ত্বকের কালো দাগ ঢাকতে ব্ল্যাক অ্যান্ড কার্টুনের কনসিলার বেছে নিতে পারেন। আর চোখের ডার্ক সার্কেল এর জন্য সবুজ বা হলুদ রঙের কনসিলার আপনাকে এক্সট্রা গ্লামার লুক দেবে।

এখন আপনার সম্পূর্ণ মুখে ফেস পাউডার বা কম্প্যাক্ট ব্রাশ করুন। এবার কম্প্যাক্ট এর সাথে থাকা পঞ্চ দিয়ে হালকা পাপ করে মুখের বেশ সেট করুন।

চোখের মেকআপ

চোখকে আকর্ষণীয় এবং দীপ্তময় করে তুলতে আইশ্যাডো এর ভূমিকা অপরিহার্য। ( পোশাকের সঙ্গে মানানসই করে একটু হাইলাইট করে নিতে পারেন)

এবার মোটা করে একটু আইলানা লাগান। পটল চেরা চোখ করতে আপনি কাজল কে ব্যবহার করতে পারেন। চোখ দুটোকে মায়াবী করতে ফলস ল্যাশসের সাহায্য নিন। এবার একটু মাস্কারা ব্যাস। আইব্রো পেন্সিল ব্যবহার করুন ভুরু সেপ দিন। হালকা কাজল কিংবা সেটাও বেশ দেখাবে।

নাকের মেকআপ

উচু নাকের অধিকারী হতে কে না চায় বলুন তো তবে যাদের নাক একটু নিচু বা চাঁপা তারাও কিন্তু নিরাশ হবেন না। নাকের দুপাশে ডীপ কালারের ফাউন্ডেশন হাতের আঙুলের সাহায্যে উপরের দিক বেশ করে মিশিয়ে নিন এবং নাকের উপরের অংশে হালকা কালারের ফাউন্ডেশন ব্যবহার করুন।কথা দিতে পারি আপনার নাক কাটা যাবে না ।

ঠোঁটের মেকআপ

প্রথমেই আপনার ঠোট টি ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিয়ে লিপবাম লাগান এবং শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এবার লিপলাইনার দিয়ে ঠোঁট সুন্দর করে ঠোঁটে এঁকে নিন।

ড্রেসের কালার অনুযায়ী লিপস্টিকের কালার পছন্দ করুন।রাতে লিভ গ্লস ও ব্যবহার করতে পারেন।

ব্লাশন

পুরো মেকওভারি কমপ্লিট হয় ব্লাশনের স্পর্শে। পিচ রঙের ব্লাশন ব্যবহার করুন ভালোই লাগবে। যদিও বা ব্লাশনের রং নির্ভর করে আপনার পোশাক লিপিস্টিক এবং আইশ্যাডোর উপরে।

ব্লাশার ব্রাশ দিয়ে ডিম আকৃতির মুখে হাড়ের সব থেকে উঁচু জায়গায় চৌকা না মুখে চোখ চোয়ালে দুই পাশে এবং গোলাকৃতি মুখে হাত থেকে গালের উপরের দিকে সঠিকভাবে ব্রাশ করুন। ব্যাস আপনার মেকআপ রেডি।