বিউটি টিপস
সৌন্দর্য এবং হেলথ টিপস

ঘরে ব্যায়াম করে ধরে রাখুন ফিটনেস – জিম করতে জিমে যেতে হবে না!

0 22

ঘরে ব্যায়াম করে ধরে ফিটনেস ধরে রাখতে চান না, এমন কেউ নেই। আমাদের মধ্যে অনেককেই বলতে শুনবেন – “কাল থেকেই জিমে ভর্তি হচ্ছি”, অথবা “আগামী সপ্তাহ থেকে জিমে যাব”। কিন্তু খোঁজ নিলে দেখা যাবে – সেই ব্যাক্তি জিমে তো দূরের কথা, জিমের ধারে কাছেও যায়নি। তাই ইদানীং অবস্থা এমন দাড়িয়েছে যে কেউ জিমে যাবে বললে আমরা মুখ টিপে হাসি। কারণ জানি যে বলার মাঝেই কর্ম শেষ। আজকাল আড্ডায় কিংবা চলতে-ফিরতে কথাচ্ছলে কাউকে ঘটা করে ‘আমি জিমে যাচ্ছি’ কথাটা বলতে পারা ফ্যাশনই হয়ে গেছে।

ঘরে ব্যায়াম করে ধরে আবার এদিকে কোনো একটা ভাবনায় প্রভাবিত হয়ে হুট করেই অনেকে জিমে ভর্তি হয়ে পড়েন। ফলাফলে দেখা যায়, খুব বেশিদিন জিমের সাথে সম্পর্কটা থাকে না। মূলত পরিকল্পনাহীনভাবে জিমে যাওয়া এবং জিমের প্রয়োজনীয়তা ও উপকারিতা উপলব্ধি না করে জিমে ভর্তি হওয়াতেই জিমের প্রকৃত উপকারটা কেউ পাচ্ছেন না। অথচ বর্তমান সময়ে নিজেকে ফিট রাখতে জিম একটি গুরুত্বপূর্ণ আইটেম হতে পারে। কিন্তু কর্মব্যস্ত জীবনে জিমে গিয়ে নিয়মিত ব্যায়াম করাটা বেশ ঝামেলার। জিম করে উপকার পাওয়ার জন্য অন্তত দিনের ৩-৪ ঘন্টা সময় জিমে কাটাতে হয়। এভাবে সময় বের করা আমাদের জন্য মুশকিল হয়ে যায়। কিন্তু এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। আমাদের জন্য আছে অন্য সমাধান।

আপনি কিন্তু চাইলে কিছু ছোট খাট টুলস কিনে এনে ঘরের ভেতরেই একটা মিনি জিম বানিয়ে নিতে পারেন। অনেক সকালে ঘুম থেকে উঠে নিয়মিত অনুশীলন করতে পারেন। অথবা রাতে বাড়িতে ফিরে খাওয়া দাওয়ার পরে একটু জিম করা যেতে পারে ঘরে ব্যায়াম করে ধরে

আপনার ঘরকে বানিয়ে ফেলুন মিনি জিম

নিশ্চয়ই ব্যামায় করার জন্য ভারি ভারি যন্ত্র কিনতে হবে বলে ভয় পাচ্ছেন? মোটেও তা নয়! ভারি যন্ত্রপাতি কিনে লাভ কি? সময় নিয়ে ঐ গুলো ব্যবহার করতে হবে, যা আমাদের নেই। তারচেয়ে সামান্য কিছু টাকা খরচ করে আপনি ছোট ছোট বিভিন্ন দরকারি টুলস কিনে নিতে পারেন যা ব্যামায় করতে কাজে লাগবে। ভাল ভাবে নিয়মিত ব্যবহার করতে পারলে আপনি জিম করার চেয়ে বেশি উপকার পাবেন। টাকা খরচের কথা শুনেও অনেকে হয়ত ভয় পাচ্ছেন। কিন্তু ভাই, আপনার স্বাস্থ্যের সুরক্ষার জন্য আপনাকে অনেক কিছুই করতে হবে। টাকাটা সেখানে বড় কথা নয়।

কি কি টুলস কেনা যেতে পারে?

কিছু ফিটনেস টুলসের নাম এখানে বলতে পারি যা দামে একদম কম এবং খুব সহজে ব্যবহার করতে পারবেন ঘরে বসে। টুলসগুলো হোলঃ

Exercise Mats, Exercise Balls, ANKLE WRIST BAND, Pedometers, TUMMY TWISTER, HAND GRIP, DUMBBELL, YOGA MAT, PUSH UP BARS GRIP, KNEE SUPPORT, ANKLE SUPPORT, ROPE, SOFT EXPANDER, CHEST EXPANDER, ELBOW SUPPORT, SWEAT BAND, WRIST SUPPORT, HEEL SUPPORT GEL, Steppers, Strength Training, HEAD BAND, Trampolines, ARM SLEEVE, FOAM HAND GRIP, THIGH SUPPORT

এই সকল ইকুইপমেন্ট ব্যবহার করে আপনি ঘরে বসে ব্যায়াম করে জিমের মত ফিটনেস ধরে রাখতে পারবেন খুব সহজেই। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে কোথ থেকে কিনবেন? এবার আসি সেই প্রসঙ্গে।

ভালো মানের ফিটনেস টুলস পাবেন কই?

সবচেয়ে ভাল হয় যদি আপনি সায়েন্স ল্যাব কিংবা গুলিস্তানের স্পোর্টস আইটেমের মার্কেটে চলে যান। এখানে যেকোনো দোকানে আপনি বিভিন্ন ফিটনেস টুলস কিনতে পারবেন। তবে এই সব আইটেম মানের দিক থেকে খুব একটা ভালো হয় না। বিভিন্ন ইকমার্স সাইট বা অনলাইন শপে আপনি এই সব পণ্য পাবেন। তবে দেশি সাইটের পণ্যের মান ভালো নয়। আমি নিজে এই ব্যাপারে ভুক্তভোগী। ভাল হয় যদি আপনি কোন ফরেইন ওয়েবসাইট থেকে কিনতে পারেন। অ্যামাজন, আলি এক্সপ্রেস বা ইবে তে একদম কম দামে ভালো মানের টুলস কিনতে পাবেন। অবাক করা বিষয় হচ্ছে যে এইসব অরিজিনাল টুলস দেশিও দোকান থেকে না কিনে বিদেশ থেকে কিনে আনলে খরচও পড়বে অনেক কম। ইন্ডিয়ান স্পোর্টস ৩৬০ ডিগ্রি বা খেলমার্ট থেকে অরিজিনাল টুলস কিনে আনতে পারেন চাইলে। কীভাবে কিনবেন?

কেন বিদেশী সাইট থেকে ফিটনেস টুলস কিনবেন?

ধরুন, আপনি একটি Cougar ব্র্যান্ডের Hand Grip কিনতে চান। বাংলাদেশে আপনি অরিজিনাল এই টুলস কিনতে গেলে দাম পড়বে – ২ হাজার টাকা। কিন্তু তারপরও ব্যাট আসল নাকি নকল সেটা নিয়ে সন্দেহ থেকে যাবে। কিন্তু যদি অ্যামাজন থেকে এই ব্যাট কিনে আনতে চান, তাহলে আপনার দাম পড়বে ২০০০ টাকার কম!

আপনি খেলমার্ট সাইটে গিয়ে এই টুলসটি দেখুনঃ Cougar Super Hand Grip

ইন্ডিয়ান রুপিতে অরিজিনাল এই টুলের দাম মাত্র ৩০০ রুপি পড়বে। সাথে ট্যাক্স ও অন্যান্য খরচ যোগ করলে ১৫০০ টাকার কম মুল্যে টুলসটি আপনি পাবেন। তাছাড়া রঙ, আঁকার, ওজন ইত্যাদি আপনি আপনার মত করে সেট করে নিতে পারবেন। অর্ডার দেবেন ঘরে বসে, টুলস চলে আসবে আপনার ঠিকানায়। কিন্তু বাংলাদেশে বসে কিনতে গেলে অনেক বেশি খরচ পড়ে যাবে। তারমানে কি দাঁড়াচ্ছে? দেশে বসে কেনাটা সাশ্রয়ী হচ্ছে। তাহলে আর দেরি কেন? অর্ডার করে নিয়ে আসুন আপনার পছন্দের টুলস আজই।

কিন্তু কি করে অর্ডার করবেন? সেই উপায়ও বলে দিচ্ছি…

কীভাবে বাংলাদেশে বসে অ্যামাজন, আলি এক্সপ্রেস বা ফ্লিপকার্ট থেকে সরাসরি ব্যাট কিনে আনবেন?

দুটি উপায় আছে!

১. মাস্টারকার্ড বা ভিসা কার্ডের সাহায্যে পেমেন্ট করে ব্যাট কেনা।

২. বাংলাদেশি কোন আমদানিকারক সংস্থার সাথে যোগাযোগ করে কেনা।

১. মাস্টারকার্ড দিয়ে কেনাঃ

আপনার, আপনার আত্মীয় বন্ধু বান্ধব বা আপনার কোন পরিচিত ব্যাক্তির যদি মাস্টারকার্ড থাকে তাহলে তার কার্ড দিয়ে অর্ডার করতে পারবেন যেকোনো পণ্য। অনেকে অবশ্য মাস্টারকার্ড দিয়ে কিনতে গিয়ে সমস্যায় পড়ে যাবেন। কারণ বাংলাদেশ থেকে মাস্টারকার্ড পাওয়া যেমন দুরূহ ব্যাপার, ঠিক তেমনি মাস্টারকার্ড এ টাকা লোড করাও বেশ ঝক্কি ঝামেলার। সরাসরি টাকা থেকে ডলারে কনভার্ট করার কোন উপায় নেই। আপনি ফ্রি ল্যান্সারদের কাছ থেকে টাকা দিয়ে কার্ডে ডলার কিনতে পারবেন। তাতেও প্রতারিত হয়ার রিস্ক থেকে যায়। এই সমস্যারও সমধান রয়েছে!

বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করেছে বিশেষায়িত ভার্চুয়াল মাস্টারকার্ড প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান – কিউকার্ড। এটি মূলত একটি নিউজিল্যান্ড এর কোম্পানি। বাংলাদেশে এরা বাজারে ছেড়েছে বিশেষ ধরণের ভার্চুয়াল কিউকার্ড। এই কার্ড আপনি মাস্টারকার্ডের মত করেই ব্যাবহার করতে পারবেন। শুধু তাই নয়, কার্ড দ্বারা অ্যামাজন, আলি এক্সপ্রেস বা ইবে থেকে যেকোনো পণ্য অর্ডার করতে পারবে ঘরে বসেই। তাছাড়া কার্ডে রিচার্জ করা যাবে বিকাশ কিংবা রকেট এর সাহায্যে। এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানুনঃ Online payment Bangladesh

২. আমদানিকারক সংস্থা থেকে কেনাঃ

বাংলাদেশে বেশ কিছু সংস্থা আছে যারা দেশের বাইরে থেকে হোল সেল এবং রিটেইল ভিত্তিতে পণ্য আমদানি করে থাকে। তাদের সাহায্যে আপনি আপনার পন্যটি নিয়ে আসতে পারবেন। এতে খরচ কম হবে এবং নিরাপদে আনার নিশ্চয়তা থাকছে।

বাংলাদেশি ইকমার্স সাইট টপ অল ব্রান্ড এই জন্য নিয়ে এসেছে দারুণ সুযোগ। সাইটের সাহায্যে আপনি অ্যামাজন কিংবা আলি এক্সপ্রেস বা ফ্লিপ কার্ট থেকে পছন্দ করা যেকোনো পণ্য অর্ডার করতে পারেন। আপনার জন্য পণ্যটি তারা আমদানি করে এনে দেবে।

অর্ডার করতে এইখানে যানঃ Bangladesh export products

আশা করছি আর্টিকেলটি আপনাদের উপকার করতে পেরেছে। ধন্যবাদ কষ্ট করে পড়ার জন্য।

মন্তব্য
Loading...