কমপ্যাক্ট পাউডার | কোন স্কিন টোনে কোন টা দেবেন?
কমপ্যাক্ট পাউডার | কোন স্কিন টোনে কোন টা দেবেন?

মেকআপ প্রীয়সপ নারীদের কাছে কমবেশি কমপ্যাক্ট পাউডার পাওয়া যায়। একে কম্প্যাক্ট বলা হয় কারণ এটি জমাটবাঁধা এবং সেমি সলিড অবস্থায় থাকে। মেকআপ সেটিং করার জন্য মেকআপ এর উপর হালকা টাচ আপ হিসেবে কমপ্যাক্ট পাউডার খুব জনপ্রিয়। আপনার স্ক্রীন টাইপ যেমনই হোক না কেন কমপ্যাক্ট পাউডার যে কোন ত্বকের মানিয়ে নেয়া যায়।

আপনার স্কিন যদি নিস্তেজ বা আনফ্রেন্ড দেখায় তাহলে কমপ্যাক্ট পাউডার হতে পারে বেস্ট সলিউশন। একদম শুরু থেকে মেক-আপের সম্পূর্ণ কভারেজ অয়েলি স্কিন থেকে ড্রাই স্কিন সব ক্ষেত্রে আপনি ইউজ করতে পারেন এই কমপ্যাক্ট পাউডার টি।

যাইহোক এবার তাহলে কিছু পয়েন্ট দেখে নেয়া যাক কিভাবে আপনি আপনার স্ক্রিন অনুযায়ী কমপ্যাক্ট পাউডার সিলেক্ট করবেন এবং সেটা ব্যবহার করবেন।

কমপ্যাক্ট পাউডার এর পারফেক্ট সেটি সিলেক্ট করুন শুধুমাত্র ব্র্যান্ড দেখে নয় সব সময় আপনার স্কিনের সাথে ম্যাচ করে কমপ্যাক্ট পাউডার এর সেট সিলেক্ট করে নিন।

আপনি যদি আপনার স্ক্রিনে চাইতে কিছু সেট লাইট কমপ্যাক্ট পাউডার সিলেক্ট করেন তাহলে আপনার ত্বক মাঝে মধ্যে ধূসর বা ছাই রঙের দেখাতে পারে।

কমপ্যাক্ট পাউডার কেনার আগে আপনার স্কিন টাচ এবং কভারেজ লেভেল সম্পর্কে জানুন। আপনার স্ক্রীন যদি কিছুটা লাইটার সেটের হয় তাহলে আপনি পিংক আন্ডার টোন এর সেট অথবা আপনার স্কিন টনের চেয়ে এক বা দুই সেড লাইট শেড বাছাই করতে পারেন। আর আপনার স্ক্রিন যদি কিছুটা ডিপ হয় তাহলে ইয়োলো বা অরেঞ্জ আন্ডারটোন এর সেট আপনি সিলেক্ট করতে পারেন যেটা আপনার তোকে সাথে ম্যাচ করবে সেটা ব্যবহার করতে পারেন।

সব সময় চেষ্টা করুন পন্যটি আপনার মুখে ইউজ করতে হাতের পেছনের দিকে নয়। সাজেশন পেতে আপনি কোন মেকআপ আর্টিস্ট এর হেল্প নিতে পারেন বা আমাদের হেল্পলাইন নাম্বারে ফোন করো আপনি হেল্প নিতে পারেন। প্রতিটি কমপ্যাক্ট পাউডার এর কভার এস লেভেল আলাদা হয় ভালো ফিনিশিং পাওয়ার জন্য আপনি কমপ্যাক্ট পাউডার এর সাথে স্টার লুসেন্ট পাউডার ব্যবহার করতে পারেন। এটি ভালো ফিনিশিং পেতে সাহায্য করে আপনার ত্বককে।

এবার চলুন জেনে নেয়া যাক কিভাবে বিভিন্ন স্কিন টাচ অনুযায়ী কমপ্যাক্ট পাউডার কিভাবে ব্যবহার করতে হয়।

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য

অয়েল কন্ট্রোল কমপ্যাক্ট পাউডার ত্বকের জন্য খুবই ভাল ফাউন্ডেশন এর কাজ করে। এটি ত্বকে অতিরিক্ত তেল শোষণ করে ত্বককে oil-free লোক এনে দেয় নিমিষেই। এটি ত্বকের তেল ভাব কমিয়ে চেহারা উজ্জ্বল দেখাতে সাহায্য করে। মেকআপ শুরু করার আগে একটি প্রাইমারি ইউজ করুন। এটিও ত্বকের তেল নিয়ন্ত্রণ করে।

কমপ্যাক্ট পাউডার ভালো ফেস এবং সম্মান ভাবে সেটাপ করার জন্য একটি মেকআপ ব্রাশ ব্যবহার করুন।টি জোন এ এক্সট্রা কোড এপ্লাই করুন।

মুখে কমপ্যাক্ট পাউডার লাগানোর আগে একটি বরফ ঘষে নিন। একটি ত্বকের পোরগুলো কে ছোট করে দেয় এবং পাউডার ভালোভাবে সেট হতে সাহায্য করে।

শুষ্ক ত্বকের জন্য

আপনার তো কমপ্যাক্ট পাউডার দিয়ে কোন ম্যাট ফিনিস দেওয়ার ট্রাই করবেন না। এতে ত্বক আরও শুষ্ক হয়ে যাবে। কোন ক্রিম বেস্ট কম্প্যাক্ট ইউজ করার চেষ্টা করুন। এটি আপনার স্কিন কে একটি হেলদি লোক এনে দেবে। মেকআপ শুরু করার আগে ত্বক মশ্চারাইজার মালিশ করে তারপর আপনার মেকআপ শুরু করুন। এটা কিছুটা সেট করে দিন তারপর কমপ্যাক্ট পাউডার ইউজ করুন। এটি আপনার ত্বককে হাইড্রেটেড এবং করবে এবং শুষ্ক হয়ে যাওয়া হাত থেকে রক্ষা করবে। আপনার ত্বক ন্যাচারাল দেখতে তোকে ফাউন্ডেশন বারবার এপ্লাই না করেই জাস্ট 2 থেকে 3 বার কোড করুন। যেসব এরিয়া খুব সহজে শুষ্ক হয়ে যায় সেসব এলাকায় কমপ্যাক্ট পাউডার এপ্লাই করবেন না যেমন গাল এবং নাকে চারপাশে এরিয়াতে। আপনার ত্বককে গ্রদিং করে তুলতে হাই লাইটার বা মিনারেলস কমপ্যাক্ট পাউডার ব্যবহার করাটা তবে আপনার জন্য গুড চয়েস।

সেনসিটিভ ত্বকের জন্য

আপনার জন্য মিনারেল পাউডার বেস্ট হবে কারণ এতে একটা সুবাস সাইড ইফেক্ট এবং পেপারে টিপ থাকে না।আপনার জন্য আরেকটা অপশন হল comedogenic বেহেন এবং acnegenic বেহেন পাউডার বাছাই করা যা সংবেদনশীল ত্বকের জন্য ভালো। আপনার ত্বক যাইবা ও এলে যাই হোক না কেন সময় এই সব সময় চেষ্টা করুন ত্বকের সেনসিটিভ অনুযায়ী স্কিন ফ্রেন্ডলি কমপ্যাক্ট পাউডার বাছাই করার জন্য।

ব্রাইট ক্লিনার এবং সাইন স্কিন পেতে কমপ্যাক্ট পাউডার হতে পারে একটি বেস্ট সলিউশন আপনার জন্য। এটি ছাড়াও মেকআপ যেন অনেকটাই অসম্পূর্ণ হয়ে যায়। তাই আপনার স্কিন টোন অনুযায়ী কমপ্যাক্ট পাউডার সিলেক্ট করুন এবং আপনার মেকআপ কে করে তুলুন একদম পারফেক্ট।